ফরেক্স ট্রেডিং নিউজ

ফরেক্স ট্রেডিং নিউজ

ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য নিউজ দারুন লাভের সুযোগ করে দেয়। নিউজ দিয়ে, আমরা বিভিন্ন ধরনের অর্থনৈতিক ডাটা রিলিজের কথা বোঝাচ্ছি। প্রতিটি মুখ্য অর্থনীতি নিয়মিতভাবে তাদের স্ট্যাস্টিকস যেমন জিডিপি, ইনফ্লেশন, আনএমপ্লয়মেন্ট রেট, ইত্যাদি প্রকাশিত করে। এসকল প্রকাশনার সময় যদি আপনি ফরেক্স ট্রেড করেন, তাহলে আপনার অনেক আয় করার সম্ভাবনা রয়েছে।

কিন্তু, একটি বিষয়ে সাবধান করবো যে সম্ভাব্য লাভের পাশাপাশি বড় ধরনের ঝুঁকিও তারসাথে আসে। এই সময়ে ভলাটিলিটি স্পাইক হয়ে থাকে এবং প্রাইসে এসময় বিশৃঙ্খলা দেখা যেতে পারে। নির্দিষ্ট কোন ইভেন্টের জন্য আপনার যদি ভালো কোন ট্রেডিং প্ল্যান না থাকে, তাহলে যেকোনো ধরনের ট্রেডিং কার্যকলাপে যুক্ত না হওয়াটা ভালো হবে।

এই টিউটোরিয়ালে, আমরা নিউজ এবং ইকনোমিক প্রকাশনা নিয়ে আলোচনা করবো। অনেকগুলো স্ট্রাটেজি রয়েছে যা আপনি ব্যাবহার করতে পারেন।

ইকনোমিক ক্যালেন্ডার কিভাবে পড়তে হয়

মার্কেটে সাধারনত ভবিষ্যতের অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির ভিত্তিতে প্রাইসিং হয়ে থাকে। চলতি রীতি অনুযায়ী, অর্থনৈতিক উন্নয়ন মানে হচ্ছে ভবিষ্যতে উন্নয়ন যার পরিণামে দেশের কারেন্সি শক্তিশালী হয়। ট্রেডাররা এসকল অর্থনৈতিক উন্নয়নের বৃদ্ধির (পজিটিভ ইকনোমিক রিলিজ) দিকে চোখ রাখে কারন সেগুলো সাধারনত আপট্রেন্ডে ঝাঁপিয়ে পড়ার সুযোগ করে দেয়। বিপরীতে, অর্থনৈতিক রিপোর্ট যদি অর্থনৈতিক উন্নয়নে শিথিলতা দেখায় তাহলে তা দেশের কারেন্সিকে দুর্বল করে। তো, কারেন্সি ভবিষ্যতের ভ্যালু নির্ধারিত হয় আসল ডাটার সফলতা, ব্যার্থতা অথবা ফোরকাস্ট লেভেল ছাড়িয়ে যাওয়ার ওপরে।

ইকনোমিক ক্যালেন্ডার হচ্ছে ট্রেডারদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ট্যুল যাতে তারা কোন গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট হাতছাড়া না করে। এর গঠন খুবই সোজা। ইকনোমিক ইনডিকেটরসমূহ তালিকা আকারে নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে সাজানো থাকে। নির্দিষ্ট কোন ইভেন্টের পাশে আপনি তিনটি ডাটা কলাম দেখতে পাবেনঃ পূর্বের ফলাফল, ফোরকাস্ট, এবং আসল ফলাফল। প্রকাশনার আগে, ক্যালেন্ডারে শুধু পূর্বের ফলাফল এবং ফোরকাস্ট থাকে। প্রকাশনার সময় হলে আসল ফলাফল দেখা যায়।

ফোরকাস্ট হচ্ছে তথাকথিত "ঐক্যমত" অথবা, অন্য কোথায়, কিছু বিশেষজ্ঞও, মার্কেট অ্যানালিস্ট যাদের কাছ থেকে নির্দিষ্ট কোন প্রকাশনার জন্যভোট নেয়া হয়েছে তাদের গড়। প্রকাশিত ডাটা যদি ফোরকাস্টের চেয়ে ভালো হয়, তাহলে কারেন্সির ভ্যালু বাড়ে। প্রকাশিত ডাটা যদি আশার চেয়ে খারাপ হয়, তাহলে সাধারনত কারেন্সির ভ্যালু কমে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, "ভালো" মানে হচ্ছে ফোরকাস্টের চেয়ে বেশী এবং "খারাপ" মানে হচ্ছে ফোরকাস্টের চেয়ে কম। কিন্তু, এসকল নিয়মে কিছু ব্যাতিক্রম রয়েছে, যেমন আনএমপ্লয়মেন্ট ক্লেইম এবং আনএমপ্লয়মেন্ট রেটঃ এই ইনডিকেটরগুলোর সংখ্যা যতো কম হবে, তা কারেন্সির জন্য ততো ভালো। আমাদের এই জিনিসটিও মাথায় রাখা উচিত যে প্রকাশিত সংখ্যা যদি ফোরকাস্ট করা লেভেলের কাছাকাছি হয়ে থাকে তাহলে তা কম প্রভাব ফেলবে। প্রকাশিত সংখ্যা এবং ফোরকাস্ট করা সংখ্যার মধ্যে পার্থক্য যতো বেশী হবে, মার্কেটে প্রভাব ততো বেশী পড়বে।

পূর্বের ফলাফল ফোরকাস্টের মতো এতো গুরুত্বপূর্ণ নয়। কিন্তু, পূর্বের ফলাফল মাঝেমধ্যে সংশোধিত হয়। এসকল সংশোধন তখন করা হয় যখন আসল ফলাফল প্রকাশের সময় হয়। সংশোধন কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ, কারন এটা মার্কেটে নিউজের ওপর প্রভাব ফেলে।

 

গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নিউজের দিকে চোখ রাখবেন যেগুলো মার্কেটে সবচেয়ে বেশী প্রভাব ফেলতে পারে।

বাছাইকৃত প্রকাশনার জন্য অপেক্ষা করবেন, এবং নিজের পরিকল্পনা অনুযায়ী ট্রেড করবেন।

মনে রাখবেন নিউজ রিলিজের প্রতিক্রিয়া মার্কেটে ৩০ মিনিট থেকে ২ ঘণ্টা পর্যন্ত দেখা যায়।

আপনার ফান্ডামেন্টাল বিবেচনা এবং টেকনিক্যাল অ্যানালিসিস যদি ব্যার্থ হয় আর মার্কেটে নিউজের প্রতিক্রিয়া যদি আপনার আশার সাথে না মেলে, তাহলে মার্কেটের বিরুদ্ধে যাবেন না। মার্কেটের ট্রেন্ড অনুসরন করবেন (হয়তো আপনি গুরুত্বপূর্ণ কিছু নিজের অ্যানালিসিসে বাদ দিয়েছেন, অথবা প্রকাশনার প্রভাব ভুল ব্যাখ্যা করেছেন)।

ট্রেড করতে তাড়াহুড়া করবেন না। শক্তিশালী সিগন্যাল এবং তাদের কনফার্মেশনের জন্য অপেক্ষা করবেন।

 

আসুন এবার তিনটি স্ট্রাটেজি নিয়ে আলোচনা করি না নিউজ ট্রেডিঙে ব্যাবহার করা যেতে পারে।

 

স্লিংশট স্ট্রাটেজি

আপনি যদি উচ্চ ভলাটাইল মার্কেটে ট্রেড করে থাকেন, তাহলে প্রাইস ট্রেন্ডিং হওয়ার আগেই আপনার স্টপ লস হিট করতে পারে। এটা আপনার জন্য সর্বনাশা হতে পারে।

পজিশন ওপেনের আগে, সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স চিনহিত করুন। এগুলো হচ্ছে "সমাপ্তির পয়েন্ট" - সেই লেভেল যেখানে আপনি পজিশন ক্লোজ করবেন প্রাইস যদি আপনার বিপরীতে যায়। এই স্ট্রাটেজির ব্যাবহারকারীরা এই উপদেশ দেয় যে নিউজ রিপোর্ট প্রকাশিত হওয়ার আগে স্টপ লস নির্ধারণ করে রাখুন। উচ্চ ভলাটাইল মার্কেটে ঝুঁকি কমাতে আপনি এসব জিনিস করতে পারেনঃ H1 চার্টে যদি দেখেন যে প্রাইস মুখ্য সাপোর্টের ১০ পিপ নিচে রয়েছে, তাহলে আপনি সেই মুখ্য লেভেলের ১০ পিপ ওপরে বাই স্টপ অর্ডার দেবেন। এভাবে আপনি প্রাথমিক কিছু সুইঙ্গের পরে মার্কেটের রিভার্সাল থেকে লাভ করতে পারবেন।

শর্ট পজিশনের জন্য একটি জিনিস করবেনঃ H1 চার্টে যদি দেখেন যে প্রাইস মুখ্য রেজিস্ট্যান্সের ১০ পিপ ওপরে রয়েছে, তাহলে আপনি সেই মুখ্য লেভেলের ১০ পিপ নিচে সেল স্টপ অর্ডার দেবেন।

স্লিংশট স্ট্রাটেজি জেতা পজিশনকে স্কেল আউট করার চেষ্টা করে যখন ট্রেড ট্রেডারের পক্ষে মুভ করে। প্রাইস যদি আপনার পক্ষে যায়, কিন্তু আপনি নিশ্চিত না যে কতক্ষণ এরকম থাকবে, তাহলে আপনি আপনার পজিশন স্কেল আউট (আংশিকভাবে ক্লোজ) করতে পারেন। প্রাইস যদি একই ডায়রেকশনে যেতে থাকে, তাহলে আপনি একই পন্থা পরবর্তী লেভেলে ব্যাবহার করতে পারেন।  

slingshot strategy.png 

আশার ওপর ট্রেড করুনঃ বাই দ্যা রুমর, সেল দ্যা ফ্যাক্ট

এটা একেবারে সরলসিধাঃ নির্দিষ্ট কারেন্সি অনুযায়ী আপনাকে মার্কেট সেন্টিমেন্ট বুঝতে হবে এবং সেই সেন্টিমেন্টের ডায়রেকশনে আপনাকে পজিশন ওপেন করতে হবে। মার্কেট সেন্টিমেন্ট শর্ট-টার্ম এবং লং-টার্মের হয়ে থাকে। অনেক ট্রেডাররা স্বল্প সময়ের জন্য ট্রেড করতে পছন্দ করে, কারন উচ্চ ভলাটিলিটির সময় তাদের কাছে ওপেনকৃত পজিশন পরিচালনা করার মতো অর্থ থাকে না।

শর্ট-টার্ম সেন্টিমেন্ট ইকনোমিক নিউজের মাধ্যমে নির্ধারিত হয়। মার্কেটে অংশগ্রহণকারীরা যদি মনে করে যে আসন্ন ডাটা ফোরকাস্টের চেয়ে ভালো হবে, তাহলে তারা তা বিবেচনায় নেবে। উদাহরণস্বরূপ, মার্কেটে অংশগ্রহণকারীরা যদি রিজার্ভ ব্যাংক অফ অস্ট্রেলিয়ার ইন্টেরেস্ট রেট বাড়ার অপেক্ষায় থাকে, তাহলে ব্যাংকের মিটিঙের আগেই (সম্ভাব্য রেট বৃদ্ধির চিন্তায় আরবিএর মিটিং হওয়ার আগেই মার্কেট প্রাইসিং করে ফেলবে) AUD এর রেট বাড়বে। আরবিএ রেট বাড়ানোর পরে, যেসকল মার্কেটের অংশগ্রহণকারীরা এধরনের মুভের জন্য প্রস্তুত ছিলো তারা হয়তো AUD/USD সেল করা শুরু করবে আর তারজন্য  রেট বাড়ার জন্য প্রাইস না বেড়ে বরং পরবে।

এসকল অবস্থায় ভালো অবস্থানে থাকতে চাইলে, আপনাকেঃ

১. আসন্ন ইভেন্ট এবং অর্থনৈতিক প্রকাশনার বিষয়ে আপ-টু-ডেট থাকতে হবে।

২. সম্প্রতিক অর্থনৈতিক রিলিজের দিকে চোখ রাখবেন এবং মার্কেটের প্রতিক্রিয়া দেখবেন।

  1. বিভিন্ন নিউজ রিলিজের মধ্যে (যেমন, রিটেইল সেলস কিভাবে জিডিপি, পিঁপিঁআই, সিপিআই, ইত্যাদি এর ওপর প্রভাব ফেলে; সেলস যদি মার্কেটের আশা ছাড়িয়ে যায়, তাহলে আমরা শক্তিশালী জিডিপি রিলিজের আশা করতে পারি) সামঞ্জস্য বুঝতে হবে।

 

 স্পাইক ট্রেডিং

এই স্ট্রাটেজি ব্যাবহার করা যেতে পারে যখন খুব গুরুত্বপূর্ণ নিউজ অথবা ইকনোমিক রিলিজ হয় যেমন নন-ফার্ম এমপ্লয়মেন্ট চেঞ্জ (নন-ফার্ম পেরোল - এনএফপি)। ব্যুরো অফ লেবর স্ট্যাস্টিকস কতৃক প্রকাশিত এটি হচ্ছে সবচেয়ে প্রভাবশালী ইনডিকেটরের মধ্যে একটি। একমাসে ইউএসেতে অখামার সেক্টরে কতগুলো চাকুরীর ব্যাবস্থা হয়েছে তার হিসাব রাখে। এনএফপি সাধারনত প্রতিমাসের প্রথম শুক্রবার প্রকাশিত হয়।

ননফার্ম পেরোল টেকনিক্যাল চার্টে অনেক নাড়াচাড়া করাতে পারে। এজন্য ট্রেডাররা মার্কেট ঠাণ্ডা হওয়ার অপেক্ষায় থাকা ভালো মনে করে (ঘোষণার পরপরই তারা ট্রেডের জন্য লাফ দেয় না) এবং যখন তাদের ভালোভাবে ধারনা হয় যে এর প্রতিক্রিয়া কি দাঁড়িয়েছে তখন ট্রেড করে।

প্রকাশনার পূর্বে আপনার করনীয়ঃ বর্তমানে পেয়ার কোন রেঞ্জের মধ্যে ট্রেড হচ্ছে তা দেখুন, তারপর প্রকাশনার ৫ মিনিট আগে ২টি পেন্ডিং অর্ডার দিন (বাই স্টপ - বর্তমান প্রাইসের ২০ পিপ ওপরে এবং সেল স্টপ - বর্তমান প্রাইসের ২০ পিপ নিচে)।

টেক প্রফিট দিন বর্তমান প্রাইসের ৪০ পিপ ওপরে এবং নিচে। প্রকাশনার ৫ মিনিট পূর্বে আপনি স্টপ লস বসাতে পারেন অথবা নাও বসাতে পারেন। ফলাফল যদি আপনার পক্ষে হয়ে থাকে, তাহলে আপনি লাভে অর্ডার ক্লোজ করতে পারেন (অন্য অর্ডারটি ক্লোজ করতে ভুলবেন না)। আপনার ভাগ্য যদি ভালো হয়ে থাকে তাহলে আপনি দুটো অর্ডার থেকেই লাভ করতে পারেন (প্রাইস যদি তার ডায়রেকশন পরিবর্তন করে বাড়ার/কমার আগে উপরে/নিচে যায়)।

ফলাফল যদি নেগেটিভ হয়, তাহলে প্রাইস এক ডায়রেকশনে মুভ করবে, প্রথম অর্ডার ওপেন হবে, কিন্তু আপনার টেক প্রফিট হিট করতে ব্যার্থ হতে পারে। তারপর, প্রাইস বিপরীতে ডায়রেকশনে মুভ করবে, আরেকটি অর্ডার ওপেন করবে, কিন্তু তাও টেক প্রফিট লেভেলে পৌছাতে পারবে না। আপনার যদি স্টপ লস থাকে, তাহলে আপনার লস সীমিত হবে। এন্ট্রির সময় যদি আপনি স্টপ লস না দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনি তা নতুন অর্ডারের মাধ্যমে ক্ষতিপূরণ করতে পারেন, আর এক্ষেত্রে ঝুঁকি বেড়ে যাবে।

spikes.png

জুলাই, ২০১৬

সেদিন ইউএস এনএফপি ২৮৭কে এসেছিলো (ফোরকাস্ট ছিলো ১৭৫কে)। কিন্তু, আনএমপ্লয়মেন্ট রেট যা আশা করা হয়েছিলো তার চেয়ে বেশী বেড়েছে (৪.৭% থেকে ৪.৯%), এজন্য EUR/USD পেয়ারকে ভলাটাইল এবং পরস্পরবিরোধী দেখা গিয়েছিলো।

এই সেকশনের অন্যান্য আর্টিকেল

জনপ্রিয়

ইউকে সিপিআই

১৭ই অক্টোবর এমটি সময় ১১:৩০ মিনিটে ইউকে তার সিপিআই ডাটা প্রকাশিত করবে।

ইসিবি মিটিং

২৬শে অক্টোবর ইউরোপিয়ান সেন্ট্রাল ব্যাংকের মিটিঙের জন্য ট্রেডাররা অধীরভাবে অপেক্ষা করছে। এমটি সময় ১৪:৪৫ মিনিটে নিয়ন্ত্রকরা তাদের মনেটারি পলিসির সিদ্ধান্ত প্রকাশিত করবে। ইসিবির সভাপতি মারিও দ্রাঘি এমটি সময় ১৫:৩০ মিনিটে সংবাদ সম্মেলনে অংশগ্রহন করবেন। 

আরবিএ মিটিং

AUD এর জন্য রিজার্ভ ব্যাংক অফ অস্ট্রেলিয়ার (আরবিএ) পলিসি হচ্ছে একটি মূল চালিকা। এর নিয়ন্ত্রকরা আবারো তাদের মনেটারি পলিসির সিদ্ধান্ত প্রদান করবে ৭ই নভেম্বর এমটি সময় ০৫:৩০ টায়। 

যেসকল প্রোমোশনে আপনার আগ্রহ থাকতে পারে

লোকাল পেমেন্ট সিস্টেম দিয়ে ডিপোজিট করুন

কলব্যাক

ম্যানেজার শীঘ্রই ফোন দেবে।

নম্বর পরিবর্তন করুন

আবেদন গ্রহন হয়েছে

ম্যানেজার শীঘ্রই ফোন দেবে।

অভ্যান্তরীন ত্রুটি দেখা দিয়েছে। অনুগ্রহ করে কিছুক্ষণ পরে আবার চেষ্টা করুন

আপনি পুরনো ভার্সনের ব্রাউজার ব্যাবহার করছেন।

লেটেস্ট ভার্সনে আপডেট করুন অথবা অন্য একটি ব্যাবহার করুন সুরক্ষিত, আরো সুবিধাজন এবং ফলদায়ক ট্রেডের অভিজ্ঞতার জন্য।

Safari Chrome Firefox Opera