দিনে ৩০ পিপ - ফরেক্স ট্রেডিং স্ট্রাটেজি

দিনে ৩০ পিপ - ফরেক্স ট্রেডিং স্ট্রাটেজি

আজ আমি আপনাকে ফ্রেড নামের একজনের কাহিনী বলবো যে মাত্র ৪০টি ট্রেডে $১,০০০,০০০ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। আমি মানি যে, অনেক চিত্তাকর্ষক। এই হচ্ছে তার বলা স্ট্রাটেজির মধ্যে একটি। এর নাম হচ্ছে দিনে ৩০ পিপ ফরেক্স ট্রেডিং স্ট্রাটেজি। আপনি জানেন যে GBP/JPY হচ্ছে ভলাটাইল কারেন্সি পেয়ার যা বড় ধরনের সুইং (১০০-২০০ পিপ) করতে পারে। তাই, এখানে আমাদের লক্ষ্য এটা থাকবে না যে ট্রেডিং সেশনে সম্পূর্ণ প্রাইস মার্জিন ধরবো, বড়ং মাত্র ৩০ পিপ। আমাদের কাহিনী শেষ হলে আমরা আসল জিনিসে যেতে পারি - স্ট্রাটেজির বিবরণী।

"মূল উপাদানসমূহ":

  1. ১. GBP/JPY কারেন্সি পেয়ার বেছে নিন
  2. ২. ৫ মিনিটের স্ক্রিনে সুইচ করুন
  3. ৩. কিছু ইনডিকেটর আপনার চার্টে বসানঃ ১০ এবং ২৬ এক্সপোনেন্সিয়াল মুভিং এভারেজ (ইএমএ)

কীভাবে ট্রেড করতে হবেঃ

১০ ইএমএ যদি ২৬ ইএমএকে ছেদ করে এবং উপরে যায়, তাহলে আমরা আপট্রেন্ডের সম্মুখীন হয়েছি। ১০ ইএমএ যদি ২৬ ইএমএকে ছেদ করে এবং নীচে যায়, তাহলে ডাউনট্রেন্ড। ইএমএ ক্রস পাওয়ার পরে, আমাদের ট্রেডারদের ক্রিয়ার জোন (রিভার্সাল জোন, বায়িং অথবা সেলিং জোন যা মার্কেট ট্রেন্ড কি তার ওপর নির্ভর করবে) চিনহিত করতে হবে। এটা প্রভাবশালী বুলিশ ট্রেন্ডের ক্ষুদ্র র‍্যালির পরে দেখা যাবে

ধরে নিন মার্কেটের মূল ট্রেন্ড ডাউন রয়েছে, সেখানে ডাউনট্রেন্ড মার্কেটে সামান্য র‍্যালি হতে পারে। প্রাইস র‍্যালি (শর্ট-টার্মে ওপরের দিকে প্রাইস মুভ) সাধারনত ট্রেডারের ক্রিয়ার জোনে শেষ হয় যখন প্রাইস আবার মূল ট্রেন্ডের ডায়রেকশনে পরা শুরু করে। একটি সদৃশ যুক্তি, কিন্তু বিপরীত পরিস্থিতি আবার ঘটতে পারে যদি মার্কেট বুলিশ হয়ে থাকে।

ডাউনট্রেন্ডে আপনার করনীয়ঃ

  • আপনি লক্ষ্য করেছেন যে ১০ ইএমএ ২৬ ইএমএকে ছেদ করে এবং নীচে যায়।
  • ক্রস ফর্মেশনের পরপরই আপনি তৎক্ষণাৎ সেল করবেন না; আপনি রিট্রেসের অপেক্ষা করবেন।
  • তারপর, যখন ক্যান্ডেলস্টিক ট্রেডারের ক্রিয়ার জোন ১০ ইএমএ এবং ২৬ ইএমএর অর্ধেক পথে যাবে তখন আপনি সেল করবেন।
  • স্টপ লস ১৫-২০ পিপ দেবেন
  • আপনার লাভের টার্গেট হবে ৩০ পিপ

আপট্রেন্ডে আপনার করনীয়ঃ

  • আপনি লক্ষ্য করেছেন যে ১০ ইএমএ ২৬ ইএমএকে ছেদ করে এবং ওপরে যায়।
  • ক্রস ফর্মেশনের পরপরই আপনি তৎক্ষণাৎ বাই করবেন না; আপনি রিট্রেসের অপেক্ষা করবেন।
  • তারপর, যখন ক্যান্ডেলস্টিক ট্রেডারের ক্রিয়ার জোন ১০ ইএমএ এবং ২৬ ইএমএর অর্ধেক পথে যাবে তখন আপনি বাই করবেন।
  • স্টপ লস ১৫-২০ পিপ দেবেন
  • আপনার লাভের টার্গেট হবে ৩০-৪০ পিপ

অনুরূপ

টেকনিক্যাল ইনডিকেটর যার সম্পর্কে প্রত্যেক ট্রেডারের জানা উচিত

জ্ঞান থেকে সফলতা আসে - এটা জীবনে বেশীরভাগ জিনিসের ক্ষেত্রে সত্য এবং বিশেষ করে ফরেক্সের ক্ষেত্রে। সফল হতে, ট্রেডারকে টেকনিক্যাল অ্যানালিসিস শিখতে হয়। টেকনিক্যাল ইনডিকেটর হচ্ছে টেকনিক্যাল অ্যানালিসিসের বিশাল একটি অংশ।

যেসকল প্রোমোশনে আপনার আগ্রহ থাকতে পারে

লোকাল পেমেন্ট সিস্টেম দিয়ে ডিপোজিট করুন

কলব্যাক

ম্যানেজার শীঘ্রই ফোন দেবে।

নম্বর পরিবর্তন করুন

আবেদন গ্রহন হয়েছে

ম্যানেজার শীঘ্রই ফোন দেবে।

অভ্যান্তরীন ত্রুটি দেখা দিয়েছে। অনুগ্রহ করে কিছুক্ষণ পরে আবার চেষ্টা করুন

আপনি পুরনো ভার্সনের ব্রাউজার ব্যাবহার করছেন।

লেটেস্ট ভার্সনে আপডেট করুন অথবা অন্য একটি ব্যাবহার করুন সুরক্ষিত, আরো সুবিধাজন এবং ফলদায়ক ট্রেডের অভিজ্ঞতার জন্য।

Safari Chrome Firefox Opera