কোন ধরনের ফরেক্স ট্রেডিং স্ট্রাতেজি আপনার ব্যাক্তিত্তের সাথে মিল খায় তা বের করুন।

কোন ধরনের ফরেক্স ট্রেডিং স্ট্রাতেজি আপনার ব্যাক্তিত্তের সাথে মিল খায় তা বের করুন।

অনেক ফরেক্স ট্রেডার রয়েছে যারা ফরেক্স মার্কেটের দিকে ঝোঁকে দ্রুত প্রাচুর্যের আশায়। দুর্ভাগ্যবশত, এসকল ব্যাক্তিগনের বেশীরভাগই লক্ষণীয় পরিমানে লাভ করতে ব্যার্থ হয়ে থাকে। এটা এ কারনে যে ফরেক্স মার্কেটে সফলতা পেতে, আপনার একটি স্বচ্ছ ট্রেডিং স্ট্রাতেজি থাকতে হবে যা আপনার ব্যাক্তিত্তের সাথে মানায় এবং আপনার ট্রেডের লক্ষ্যের সাথেও।

ফরেক্স ট্রেডাররা বিভিন্ন ধরনের স্ট্রাটেজি এবং কৌশল প্রয়োগ করে যাতে তারা সেরা এন্ট্রি এবং এক্সিট পয়েন্ট নির্ধারণ করতে পারে - এবং সময় - যখন কারেন্সি বাই এবং সেল করবে। মার্কেট অ্যানালিস্ট এবং ট্রেডাররা প্রতিনিয়ত নতুন কিছু প্রবর্তন এবং স্ট্রাটেজির উন্নয়ন করে থাকে যাতে তারা কারেন্সি মার্কেটের মুভমেন্টের নতুন অ্যানালিটিক্যাল মেথড উদ্ভাবন করতে পারে। নিম্নে তিনটি মুখ্য ধরনের ট্রেডার এবং স্ট্রাটেজি ব্যাখ্যা করা হয়েছে যার ভিত্তি হচ্ছে সন্দেহাতীত এবং অত্যাশ্চর্য সফলতা।

ট্রেন্ড ট্রেডিং (অথবা ট্রেন্ড অনুসরন) হচ্ছে মার্কেটে বড় ধরনের মুভ থেকে বিশিষ্ট উপায়ে লাভ করা যাতে কম্পিউটারের সামনে বেশী সময় বসে থাকার প্রয়োজন হয় না। ট্রেন্ড ট্রেডাররা ট্রেন্ড চিনহিত করে এবং কম ঝুঁকিপূর্ণ এন্ট্রি পয়েন্ট খুঁজে বের করে যেখান থেকে তারা তাদের পজিশন ধরে রাখে যতক্ষণ পর্যন্ত না মার্কেট রিভার্স করে। এই স্টাইল বেশীরভাগ অ্যাসেটে কাজ করে এবং পর্যাপ্ত পরিমানে ডাইভারসিফিকেশন, ঝুঁকি নিয়ন্ত্রন এবং সিস্টেমর ওপর স্থির থাকলে অনেক লাভজনক হতে পারে।

ফরেন এক্সচেঞ্জে বড় ট্রেড সাধারনত অজানা থাকে কারন স্বতন্ত্র ট্রেড চিনহিত করার তুলনায় মার্কেট অনেক বড়। এছাড়াও, একজন ট্রেডার সম্পূর্ণ অর্থনীতির ওপর প্রভাব ফেলবে তার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। কিন্তু, জর্জ সোরোস হচ্ছেন ব্যাতিক্রম। তাকে ইতিহাসের সবচেয়ে সফল ট্রেডার এবং "দ্যা ম্যান হু ব্রোক দ্যা ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড" হিসেবে ডাকা হয়। তিনি GBPDEM ট্রেড করে কারেন্সি পেয়ারে $১ বিলিয়ন আয় করেছিলেন।

তার মুখ্য স্ট্রাটেজি ছিলো কোন দেশের আসন্ন অর্থনৈতিক দুর্বলতা চিনহিত করা এবং সেই কারেন্সি পেয়ার ফল করার ঠিক আগে শর্ট করা। কারেন্সির ওঠানামায় সর্বোচ্চ সম্ভাবনা - এবং এরফলে, লাভ - হত তখন যখন কারেন্সির ফিক্সড রেট আরেকটি কারেন্সির সাথে সংযুক্ত থাকে।

প্রায় সব ধরনের ট্রেডের কার্যকলাপ টেকনিক্যাল অ্যানালিসিসের আশেপাশে ঘোরাফেরা করে এর বৈচিত্র্য এবং স্টক মার্কেটে চাহিদা এবং জোগানের বিভিন্ন উপায়ে অ্যানালাইজ করার কারনে। যতক্ষণ আপনি জানবেন যে এটাকে কীভাবে কাজে লাগানো যায়, আপনি ডে ট্রেডার, সুইং ট্রেডার অথবা পজিশনাল ট্রেডার হতে পারেন। এরজন্য আবশ্যক মূলগত জ্ঞান প্রায় একরকম। কিন্তু, এটা ট্রেডিং স্টাইল অনুসরনের সম্পূর্ণ প্রাসঙ্গিক নয় আর সুযোগ অ্যানালাইজ করার প্রত্যয় একেবারে ভিন্ন। প্রায় সব ট্রেডার যারমধ্যে ইন্সটিটিউনাল ট্রেডার, ব্যাংক ইত্যাদি রয়েছে তারা টেকনিক্যাল অ্যানালিসিস ব্যাবহার করে মার্কেট পরিমাপ করে এবং স্টক মার্কেট সম্পর্কে সম্ভাব্য বা প্রত্যাশিত ভবিষ্যৎ সংক্রান্ত লক্ষন নির্ধারণ করে।

ল্যারি আর. উইলিয়ামস হচ্ছেন একজন বিখ্যাত কমোডিটি ট্রেডার যিনি ইউএসএতে ১৯৪২ সালে জন্মগ্রহন করেন। ফরেক্স ট্রেডের বিশ্বে, তার নাম নিয়ে অনেকগুলো ইনডিকেটর তৈরি করা হয়েছে, যারমধ্যে আলটিমেট অসিলেটর, উইলিয়ামস %R ইনডিকেটর, মার্কেট সেন্টিমেন্ট, কট সূচক, সাইকেল ফোরকাস্ট এবং আরও অন্যান্য রয়েছে।

১৯৮৭ সালে, ল্যারি আর. উইলিয়ামস ওয়ার্ল্ড কাপ চ্যাম্পিয়নশিপ অফ ফিউচারস ট্রেডিং জিতেছেন, যেখানে তিনি মাত্র $১০,০০০ দিয়ে $১,১০০,০০০ বানাতে সক্ষম হয়েছেন। এই অবিশ্বাস্য সফলতা ১২ মাসে অর্জন করা হয়েছে এবং মূলত ল্যারির যুগান্তকারী ফিউচারস ট্রেডের পদ্ধতির ভিত্তিতে হয়েছে। পরবর্তীতে তিনি একটি বই প্রকাশিত করেন যার নাম "হাউ আই মেড ওয়ান মিলিয়ন ডলারস লাস্ট ইয়ার ট্রেডিং কমোডিটিস"।

ডে ট্রেডাররা এই আশায় স্টক বাই এবং সেল করে যে স্টকের প্রাইস দিনের মধ্যে ওঠানামা করবে, যা তাদের দ্রুত লাভ করার সুযোগ দেয়। একজন ডে ট্রেডার তার স্টক কয়েক সেকেন্ড থেকে শুরু করে কয়েক ঘণ্টা পর্যন্ত ধরে রাখবে, কিন্তু প্রতিদিন দিন শেষ হওয়ার আগে সবকিছু বন্ধ করে নেবে। একজন ডে ট্রেডার দিনের শেষে কোন পজিশন ধরে রাখে না তথায় ওভারনাইট রিস্ক থেকে সে সুরক্ষিত থাকে। ডে ট্রেডিঙের লক্ষ্য হচ্ছে দ্রুত এন্ট্রি নেয়ার এবং ইন্ট্রা-ডের ভিত্তিতে নির্দিষ্ট স্টক থেকে বের হয়ে যাওয়া।

হয়তো ডে ট্রেডারের সেরা উদাহরন হচ্ছে ইউএসএ-ভিত্তিক স্ব-প্রতিষ্ট লাখপতি, টিমোথি সাইকস। তিনি বিশ্বের পেনি স্টক ট্রেডিঙের নেতৃত্তস্থানীয়দের মধ্যে একজন। তিনি শুধু বড় $৫-এর কম শেয়ার থেকে বড় অঙ্কের অর্থই উপার্জন করেননি বড়ং অন্যদের শেখানোর জন্য নিজেকে নিযুক্ত করেছেন যে লাভে কীভাবে সফলতা অর্জন করতে হয়, তারমধ্যে ওয়াল স্ট্রিটও রয়েছে।

যেখানে বেশীরভাগ স্কুল ছাত্রদের কাছে $১২,০০০ অনেক বেশী অর্থ মনে হতে পারে, টিমোথি সাইকস সেটাকে ভবিষ্যতের লাভের সুযোগ হিসেবে দেখেছে। তিনি পেনি স্টকে ডে ট্রেডিং শুরু করেছেন যখন তিনি উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়তেন, এই পরিমান অর্থ দিয়ে। অবিশ্বাস্যভাবে, ২১ বছর বয়সে তিনি $১. ৬ মিলিয়ন বানিয়েছেন। এটা তার লাভদায়ক ক্যারিয়ারের শুরু ছিলো, আর নিঃসন্দেহে এটি তার জীবনের সবচেয়ে চিত্তাকর্ষক কৃতিত্বের একটি।

তো এসকল উদাহরন অবিশ্বাস্য সফলতার উদাহরন দিয়ে অনুপ্রেনিত হোন আর ছোট একটি টেস্ট দিন যাতে এটা নির্ধারণ করতে পারেন যে কোন ট্রেডিং স্ট্রাটেজি আপনাকে আপনার মুখ্য ট্রেডের লক্ষ্যের দিকে নিয়ে যাবে এবং আপনাকে যথাযথ পরিমানে লাভ করার সুযোগ দেবে।

টেস্ট

জনপ্রিয়

FBS [ব্রকারের] কাস্টমার সাপোর্টের নেপথ্যেঃ "আপনি কি মানুষ না রোবট?"

আপনি কি কখনো ভেবে দেখেছেন যে ব্রোকার কোম্পানি কীভাবে তার ক্লায়েন্টদের সাথে যোগাযোগ করে? কর্মদিবসে কাস্টমার সাপোর্ট কীভাবে কাজ করে সেসম্পর্কে রোমাচকর তথ্য জানুন FBS কোম্পানির উদাহরণের মাধ্যমে।

লোকাল পেমেন্ট সিস্টেম দিয়ে ডিপোজিট করুন

কলব্যাক

ম্যানেজার শীঘ্রই ফোন দেবে।

নম্বর পরিবর্তন করুন

আবেদন গ্রহন হয়েছে

ম্যানেজার শীঘ্রই ফোন দেবে।

অভ্যান্তরীন ত্রুটি দেখা দিয়েছে। অনুগ্রহ করে কিছুক্ষণ পরে আবার চেষ্টা করুন

নতুনদের জন্য ফরেক্স বই

ট্রেডিং শুরু করতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিসসমূহ
আপনার ই-মেইল দিন, আর আমরা আপনাকে ফ্রি ফরেক্স গাইডবুক প্রেরন করবো

ধন্যবাদ!

আমরা আপনার ই-মেইলে বিশেষ একটি লিংক প্রেরন করেছি।
সেই লিংকে ক্লিক করে ইমেইল নিশ্চিত করুন আর নতুনদের জন্য ফ্রি ফরেক্স গাইডবুক নিয়ে নিন।

আপনি পুরনো ভার্সনের ব্রাউজার ব্যাবহার করছেন।

লেটেস্ট ভার্সনে আপডেট করুন অথবা অন্য একটি ব্যাবহার করুন সুরক্ষিত, আরো সুবিধাজন এবং ফলদায়ক ট্রেডের অভিজ্ঞতার জন্য।

Safari Chrome Firefox Opera